একগুচ্ছ সুফি কবিতা: এনামূল হক পলাশ

সুফি কবিতা ১

কি হারিয়েছো যার তালাশে

পেরেশান হয়ে তুমি ঘুরছো?

তুমি কি সূর্যাস্ত দেখোনি

যা পরবর্তীতে উদয় হয়?

নিজেকে হারানোর আগেই

ফিরে এসো নিজের দেহে।

 

 

সুফি কবিতা ২

কাকে তালাশ করে হয়রান

হয়ে আছো তুমি দিনরাত?

তাকে সঙ্গে নিয়েই তুমি

পার হচ্ছো নিজ ভূমি।

 

সুফি কবিতা ৩

ভয় পেওনা আমি আছি

তোমার কাছাকা‌ছি,

ভনভনিয়ে আছি আমি

ক্ষুদ্র একটি মাছি।

মাছির ভয়ে পালিওনা

চক্ষু আমার হাজার,

আমার চোখে দেখে নিও

ভবের হাটবাজার।

 

আরো পড়ুন: চাঁদের পাহাড় রিভিউ

 

সুফি কবিতা ৪

নিয়মিত যাতায়াতের রাস্তা

মনে হয়না খুব বেশি দূর,

অনিয়মিত হলেই তোমার

সাথে বাড়ে দূরত্বের ঘোর।

 

 

সুফি কবিতা ৫

সময় হলেই গাছ থেকে

টুপটাপ তাল পড়ে,

ধর্মের কল দেখো এভাবেই

আপনা আপনি নড়ে।

 

 

সুফি কবিতা ৬

কানের কাছে ফিসফিসানি

লম্বা টানের শ্বাস,

বুকের ভেতর ধুকপুকানি

দিলাম তোমায় আজ।

ঘুমের ঘোরে আমার হৃদয়

নতুন জীবন চুমে,

এবার আমায় শুদ্ধ করো

বর্ষা মুখর ঘুমে।

 

 

সুফি কবিতা ৭

আকাশ থেকে সূর্য্য ছেঁড়া

অগ্নি পিন্ড এসে,

আমার ভেতর ঘুমিয়ে আছে

বেলা যাওয়ার শেষে।

 

 

সুফি কবিতা ৮

পাথর হয়ে রাত্রি জাগি

হইনি আমি ছাই,

তালাশ করি তালাশ করি

যেখানে যা পাই।

 

 

সুফি কবিতা ৯

তুমি আছো বরফ শীতল

আমার ভেতর সুপ্ত,

অগ্নিতে মন না পোড়াটা

রহস্য এক গুপ্ত।

 

 

সুফি কবিতা ১০

হৃদয় আমার তোমার দিকে

ধ্যানে সমর্পিত,

কিছুই আমার যায় আসেনা

কেউ না হলেও প্রীত।

এনামূল হক পলাশ এর দশটি কবিতা

 

আরো পড়ুন: পলিয়ার ওয়াহিদের কবিতা