বইয়ের খবর: সাবেক আইজিপির বই- পুলিশ জীবনের স্মৃতি: স্বৈরাচার পতন থেকে জঙ্গি দমন

বাংলাদেশ পুলিশের সাবেক মহাপরিদর্শক (আইজিপি) এ কে এম শহীদুল হক প্রণীত ‘পুলিশ জীবনের স্মৃতি: স্বৈরাচার পতন থেকে জঙ্গি দমন’ বইয়ের প্রকাশনা ও মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হলো। গতকাল শনিবার ২৮ মে রাজধানীর শাহবাগে জাতীয় জাদুঘরের কবি সুফিয়া কামাল মিলনায়তনে এ অনুষ্ঠান আয়োজন করা হয়।

সাবেক আইজিপি এ কে এম শহীদুল হকের ৩২ বছরের পুলিশ সার্ভিসের কর্মজীবনের অভিজ্ঞতা নিয়ে রচিত হয়েছে আত্মজীবনী ও স্মৃতিকথামূলক এ বই। এই বইটি প্রকাশ করেছে দেশের খ্যাতনামা প্রকাশনা প্রতিষ্ঠান ইউনিভার্সিটি প্রেস লিমিটেড (ইউপিএল)।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বাংলা একাডেমির সভাপতি খ্যাতনামা কথাসাহিত্যিক সেলিনা হোসেন।

অনুষ্ঠানে বক্তব্য রেখে সাবেক আইজিপি এ কে এম শহীদুল হক বলেন, “এই দেশের ক্ষমতাসীন রাজনৈতিক দলগুলো চায়, তারা যা বলে পুলিশ তাই করুক। রাজনৈতিক শক্তি ও আমলাতন্ত্র কখোনোই পুলিশের পরিবর্তন চায় না। ক্ষমতাসীনেরা মনে করেন পুলিশ তাদের নিজস্ব সম্পদ। স্থানীয় সংসদ সদস্য যা বলবেন, ওসি তাই করবেন। এমন সব প্রতিকূলতা ও চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করে কাজ করা অত্যন্ত কঠিন।”

এ কে এম শহীদুল হক আরো বলেন, “আমার সার্ভিস লাইফে কখোনো রাজনৈতিক অপশক্তির কাছে মাথা নত করিনি। আমি কখোনোই চেয়ার আঁকড়ে ধরে চাকরি করিনি। অনেকবার বদলি হতে হয়েছে, চলে গিয়েছি। চাকরিরত অবস্থায় মৌলভীবাজারে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে এতটুকু পিছপা হইনি। তবে সবাই তো আমার মতো পারবে না। এমন একটা সিস্টেম বা পদ্ধতি চালু করা উচিত, পুলিশ যেন নিরপেক্ষভাবে কাজ করতে পারে। পুলিশের কর্মক্ষেত্র সুবিশাল। জাতীয় সংসদ, সচিবালয় থেকে বস্তিতে পর্যন্ত পুলিশকে কাজ করতে হয়।”

সাবেক আইজিপির লেখা এ বইটির মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন– ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিকী, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক অধ্যাপক সৈয়দ মনজুরুল ইসলাম, বাংলাদেশ পুলিশের আরেক সাবেক মহাপরিদর্শক (আইজপি) ও সচিব মোহাম্মদ নুরুল হুদা, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সাবেক মুখ্য সচিব ও কবি কামাল আবদুল নাসের চৌধুরী, বইটির প্রকাশক ও ইউপিএলের সত্ত্বাধিকারী মাহরুখ মহিউদ্দিন, বইটির সম্পাদক রাখাল রাহা প্রমুখ।

আরো পড়ুন: বদরুজ্জামান আলমগীরের কবিতা

                  পলিয়ার ওয়াহিদের কবিতা