একগুচ্ছ কবিতা: আলফ্রেড খোকন

 একলা কুকুর

বৃস্টি থেমে গেছে অনেক্ষন

মেঘালয়ের ঢাল বেয়ে

সুনামগঞ্জে

বন্যা আসলো, মারী আসলো

লোকালয়ে, মহামারীও

জলে ডুবে গেল বাড়িঘর

তোরা কেমন আছিস, এই কথা জানতে চেয়ে ঢাকা থেকে

গ্রামীণ ফোনে কল আসলো ফুফুর

রাস্তার ধারে দাঁড়িয়ে থাকা মানুষের জন্য

বিমানযোগে  ত্রাণ আসলো

সবাই ঝাপিয়ে পড়ল, এমনই একটা দুপুর;

তার জন্য কেউ আসল না,

তোমার ফেলে আসা প্রিয় বাড়ির

ডুবন্ত ছাদের কোণে বসে থাকা

যে আমি- একলা কুকুর ।

 

আরও পড়ুন- আলফ্রেড খোকনের কবিতা

 

 আগামীকাল

জীবনানন্দ দাশ, কাজী নজরুল  কিংবা

রবীন্দ্রনাথকে নিয়ে যারা করে খাচ্ছে

তারা চিরকাল এমন করেই যায়, যাচ্ছে

কিন্তু তাদের পোলাপান যেন কেউ কবি

না হয়, শিল্পী বা গায়ক না হয়

সেদিকে খুব নজর  রাখছে।

তারা বুঝতেই পারছে না যে

আগামীকালের

ছেলেমেয়েরা সব ফাপাচ্ছে !

এবং কেউ কবি, কেউ কথাশিল্পী

কেউ বিজ্ঞানী অথবা বোহেমিয়ান

কেউ নাট্যকার, কিংবা গায়ক  হচ্ছে

শাহবাগ মোড়ে দাঁড়িয়ে যারা

মানুষের কথাটাই বলতে উদ্যত

হতে পারে তা জাতীয় জাদুঘরের সামনে

নিঃসংগ ওই তালগাছটির মত।

 

 

 প্রবণতা: প্রেম ও তার ভাষা

আচ্ছা এসো, ফিকে চা অথবা

কফির নিমন্ত্রণ।

নিশ্চিত করে বলতে পারি না,

আমাদের জুজুবুড়ি মন;

কোথাও কফি মানে মাননীয় প্রেম,

কোথাও প্রেম মানে চায়ের চুমুক,

যেমন দূরের তারাটি আজও মেম

তথাপি সন্ধ্যারা কিছু একটা বলুক;

কোনো দিন দুধরণের সাক্ষাতের সময়

কোনোভাবেই যখন বলা যাচ্ছে না

নাগর কফি কিংবা ডাগর চায়ের পাতায়

তাকিয়ে থাকে উভয়, প্রণয়েষু সন্ধ্যা।

 

ফলো করুন- দিব্যপাঠ সাহিত্য পত্রিকা