বিখ্যাত কবি সাহিত্যিকদের ছদ্মনাম ও উপাধিসমূহ

বাংলা সাহিত্য খুবই সমৃদ্ধ সাহিত্য। বাংলা সাহিত্যের প্রাচীন যুগের ইতিহাসের খোঁজ না পাওয়া গেলেও মধ্যযুগের ইতিহাসের খোঁজ পাওয়া গিয়েছে। মধ্য যুগ হতে এখন পর‌্যন্ত অসংখ্য কবি সাহিত্যিক নাট্যকার তাদের মূল নাম আড়াল করে ছদ্মনাম ধারণ করে তাদের রচিত লেখা প্রকাশ করেছেন। কেউ কেউ ছদ্ম নামেই বিখ্যাত হয়েছেন। কেউ আবার এক সময় ছদ্মনাম ত্যাগ করে প্রকৃত নামে লেখালেখি করেন। এছাড়াও বাংলা সাহিত্যে আরেকটি উল্লেখযোগ্য বিষয় হলো, লেখকগণকে বিভিন্ন উপাধীতে ভূষিত করা। আজকের আর্টিকেলে আমরা বাংলা সাহিত্যের বিখ্যাত কবি সাহিত্যিক নাট্যকার পালাকারের ছদ্মনাম ও উপাধী সম্পর্কে জানবো।

১. রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর (১৮৬১-১৯৪১)- নোবেল জয়ী কবি, বিশ্বকবি, নাইট, কবিগুরু, ভানুসিংহ ঠাকুর।

২. কাজী নজরুল ইসলাম (১৮৯৯-১৯৭৬)- জাতীয় কবি, বিদ্রোহী কবি, দুঃখু মিয়া।

৩. বঙ্কিমচন্দ্র চট্টোপাধ্যায় (১৮৩৮-১৮৯৪)- সাহিত্যসম্রাট।

৪. ইশ্বরচন্দ্র গুপ্ত (১৮১২-১৮৫৯)- বিদ্যাসাগর, গদ্যের জনক।

৫. হেমচন্দ্র (১৮৩৮-১৯০৩)- বাংলার মিল্টন।
৬. ভারতচন্দ্র (১৭১২-১৭৬০)- রায়গুণাকর।
৭. ইশ্বরচন্দ্র (১৮২০-১৮৯১)- যুগসন্ধিক্ষণের কবি।

৮. গোলাম মোস্তফা (১৮৯৭-১৯৬৪)- কাব্য সুধাকর।

৯. ফররুখ আহমদ(১৯১৮-১৯৭৪)- মুসলিম রেনেসাঁর কবি।

১০. জসিম উদ্দীন (১৯০৩-১৯৭৬)- পল্লী কবি।

১১. মুকুন্দ রাম (১৫০০-১৫৫১)- কবিকঙ্কন, চারণ কবি।

১২. বাহরাম খান (১৬০০)- দৌলত উজির।

১৩. মধুসূদন দত্ত- মাইকেল, আধুনিক কবিতার জনক, বাংলা সনেটের প্রবর্তক।

১৪. বিহারীলাল চক্রবর্তী- ভোরের পাখি।

১৫. আবদুল হাকিম- সাহিত্য বিশারদ।
১৬. সত্যেন্দ্রনাথ দত্ত- ছন্দের যাদুকর।

১৭. সমর সেন- নাগিরিক কবি।

১৮. শরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়- অপরাজেয় কথাশিল্পী, শ্রীকান্ত।

১৯. মোজাম্মেল হক- শান্তিপুরের কবি।

২০. সুকান্ত ভট্টাচার্য- কিশোর কবি।

২১. বিষ্ণু দে- মার্কসবাদী কবি।

২২. সুধীন্দ্রনাথ দত্ত- ক্ল্যাসিক কবি।

২৩. রাম নারায়ণ- তর্করত্ন।

২৪. ড. মুহাম্মদ শহীদুল্লাহ- ভাষাবিজ্ঞানী, চলমান অভিধান।

২৫. গোবিন্দ দাস- স্বভাব কবি।

২৬. সৈয়দ ইসমাইল হোসেন সিরাজী- স্বপ্নাতুর কবি।

২৭. আলাওল- মহাকবি, কবিগুরু।

২৮. যতীন্দ্রনাথ বাগচী- দুঃখবাদের কবি।

২৯. মোহাম্মদ নজীবুর রহমান- সাহিত্যরত্ন।

৩০. বিদ্যাপতি- মিথিলার কবি, পদাবলির কবি।

৩১. শ্রীকর নন্দী- কবীন্দ্র পরমেশ্বর।

৩২. সুভাষ মুখোপাধ্যায়- পদাতিকের কবি।

৩৩. বিনয়কৃষ্ণ মুখোপাধ্যায়- যাযাবর

৩৪. মুহাম্মদ কাজেম আল কুরায়শী- কায়কোবাদ।

৩৫. তারাশঙ্কর বন্দোপাধ্যায়- রাঢ়ের সাহিত্যিক।

৩৬. মীর মশাররফ হোসেন- গাজী মিয়া।

৩৭. প্যারীচাঁদ মিত্র- টেকচাঁদ ঠাকুর।

৩৮. বলাইচাঁদ মুখোপাধ্যায়- বনফুল।

৩৯. কালীপ্রসন্ন সিংহ- হুতোম পেঁচা।

৪০. কালীকানন্দ- অবধূত।

৪১. নীহাররঞ্জন গুপ্ত- বানভট্ট।
৪২. জীবনানন্দ দাশ- শুদ্ধতম কবি, নির্জনতার কবি।

৪৩. রোকনুজ্জামান খান- দাদাভাই।

৪৪. সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী- গাছ পাথর।

৪৫. প্রমথ চৌধুরী- বীরবল।

৪৬. সুনীল গঙ্গোপাধ্যায়- নীল লোহিত।

৪৭. সৈয়দ আলী আহসান- চেনাকণ্ঠ।

৪৮. সমরেশ বসু- কালকূট।

৪৯. অচিন্ত্যকুমার সেনগুপ্ত- নীহারিকা দেবী।

৫০. নারায়ণ গঙ্গোপাধ্যায়- সুনন্দ।

তথ্যসূত্র: বাংলা একাডেমি, উইকিপিডিয়া, সাহিত্যকোষ

আরো পড়ুন: রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের নোবেল পাওয়া ইতিহাস