চন্দ্রশিলা ছন্দা’র একগুচ্ছ ছড়া

রোদটা যেন মা

যখন ক্লান্তি নামে মেঘের মত

সুচের ফোঁড়ে কষ্ট  যত

বিক্ষত হয় মন

তখন-

জগত জুড়ে মায়ের মত

কে হয় আপনজন!

 

যখন স্বপ্ন ভাঙা কাতর চোখে

ভাসি একা পাই না দিশে

ফিসফিসিয়ে গল্প বলা

মায়ের মুখটি ভাসে

মা হয়ে যায় রোদের সকাল

ঝলমলিয়ে আসে।

 

রোদটা আমায় দেয় কিছু বোধ

ভীষণ শীতে উষ্ণ পরশ

গাছের শাখায় কেঁপে ওঠা

হলদে পাখিটা-

ঠিক তখনই আবেশ ছড়ায়

রোদ হয়ে যায় মা।

 

রোদটা যেন মা হয়ে যায়

মা হয়ে যায় রোদ

প্রকৃতি আর মায়ের কাছে

হয় না ঋণের শোধ।

 

আরও পড়ুন-  শাদাত আমীনের গল্প- জলচোরা

 

বৃষ্টি দিনের ছড়া

বৃষ্টি ঝরে মুষলধারে

মনটা যেন কেমন করে

বন্দী থাকা যায় না ঘরে

ঝর ঝর ঝর বৃষ্টি ঝরে।

 

ঝর ঝর ঝর বৃষ্টি ঝরে

পাতার আড়ে কে রে?

সোনা ব্যাঙে নৃত্য করে

গর্তে লুকায় ধেড়ে।

 

বৃষ্টি ঝরে বৃষ্টি ঝরে

ভিজছে হাসের ছানা

মা কেন যে এতো অবুঝ

করেই শুধু মানা।

 

বৃষ্টি দেখে নাচছে খোকা

ভিজবে সেও যায় না রোখা

পাতায় পাতায় বৃষ্টি ঝরে

ভিজছে সারা গাঁ

দাওয়াই বসে আপন মনে

ভেজায় খুকি পা।

 

আরও পড়ুন- আকিব শিকদারের গল্প- শেষ রাতের আলাপন

 

অন্যরকম ঈদ

দেখতে দেখতে আবার এলো পবিত্র রমজান

একটি মাসের ত্যাগ মহিমায় শুদ্ধ হবে প্রাণ।

 

নামাজ রোজা যাকাত আদায় করবে যত পারো

গুনাহ মাফের সুযোগ তুমি পাবে অধিক হারও।

তাই বলে ঠিক এমনও নয় ইচ্ছে গুনাহ পাপ

দয়ার সাগর আল্লাহ তালা করে দেবেন মাফ!

 

সিয়াম মানে এমনটি নয় একটি মাসের সাধন

মাসের শেষে ইচ্ছে মত খুলবে মনের বাঁধন।

 

এবার ঈদটি অন্য রকম, এখন সবাই জানে

ঘরবন্দী পড়বো নামাজ মনটা কি তাই মানে?

ঈদের মেলায় সেজেগুজে ঘুরবো মজা করে

বন্ধুরা সব তৈরি থেকো উঠবে কিন্তু ভোরে।

 

জয়েন করুন- দিব্যপাঠ সাহিত্য ফোরাম